Select your city
Search



Lifan Victor-R V100Link user review by Aowal Ali
2019-01-06 Views: 470
Owned for 1year+   []   Ridden for 10000km+


This user provides ratings about this bike


  7 out of 10
Design
Comfort & Control
Fuel Efficient
Service Experience
Value for money

লিফান ভিক্টর-আর ভি১০০লিংক রিভিউ - আওয়াল আলী



Lifan-Victor-R-V100Link-user-review-by-Aowal-Ali

প্রথমেই আমি আমার পরিচয় দিয়ে শুরু করছি। আমার নাম মোঃ আওয়াল আলী। পেশায় আমি একজন ব্যবসায়ী। আমার মোটরসাইকেল এর নাম ভিক্টর আর ভি ১০০ লিংক। ব্যবসার কাজে আমাকে প্রতিনিয়ত এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে হয়। এই কাজের জন্য একটা মোটরসাইকেল আমার খুব জরুরি ছিল। তখন আমি ভিক্টর আর ভি ১০০ লিংক মোটরসাইকেলটি কিনার সিদ্ধান্ত নিই। এই মোটরসাইকেলটি আমি আমার এক বন্ধুর থেকে কিনেছি। সে প্রায় ১ বছর মোটরসাইকেলটি ব্যবহার করেছে। আমিও প্রায় ১ বছর যাবত এই মোটরসাইকেলটি ব্যবহার করছি। এই মোটরসাইকেলটি আমার জীবনের প্রথম বাইক। এই মোটরসাইকেলটির তেল খরচ খুবই কম। ভাল মাইলেজ পাবার আশায় মূলত আমি এটি কিনি। মোটরসাইকেলটি ২ বছরে প্রায় ২০০০০ কিমি পথ চলেছে। এই মোটরসাইকেলটি কিনার আরেকটি উদ্দেশ্য হল, মোটরসাইকেলটি আমি খুব কম দামে কিনেছিলাম। এমন কম দামে পেয়েছি বলে পুরাতন বাইক কিনেছি। তবে আশা ছিল নতুন বাইক কিনার।

আমি এখন আমার মোটরসাইকেল এর ইঞ্জিন নিয়ে কিছু কথা বলতে চাই, কারন একটি বাইকের মূল অংশ হল তার ইঞ্জিন। আমার এই মোটরসাইকেল এর ইঞ্জিন খুব ভাল। কেননা ২ বছরে এখন পর্যন্ত ইঞ্জিনে কোন সমস্যা দেখতে পাই নাই। এর ইঞ্জিনের শব্দটাও আমার খুব ভাল লাগে। দ্রুত গতিতে চালিয়েও দেখেছি ইঞ্জিনে কোন খারাপ শব্দ হয় না। এর ইঞ্জিন পারফরমেন্স অনেক ভাল। ডিজাইনের কথা বলতে গেলে এই ডিজাইনটা মোটামুটি আমার কাছে ভাল মনে হয়েছে। তাছাড়া এই মোটরসাইকেল এর প্লাস্টিক অনেক মজবুত। যা সহজে ভেংগে যায় না। কারণ আমি দুই/ তিন বার মোটরসাইকেল নিয়ে পড়ে গিয়েছিলাম। উঠে দেখি মোটরসাইকেল এর তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয় নাই। তখন আমার ভিক্টর আর এর উপর আস্থা ফিরে আসে। এটি অল্প আঘাতে কিছুই হবার না। এর বিল্ড কোয়ালিটিও আমার কাছে মজবুত মনে হয়েছে। ২ বছর পরেও এর বডির রঙ খুব একটা পুরাতন হয় নাই।







এই মোটরসাইকেলটির সিটিং পজিশন খুব ভাল। এটিতে বসে যে কেউ খুব সহজেই মাটিতে পা রাখতে পারবে। কারণ এটি খুব একটা উঁচু বাইক না। আমি খুব আরাম এর সাথেই এটি চালাতে পারি। এর সুইচগুলো দেখতে অনেক সুন্দর। যা ব্যবহার করতে আমার কোন রকম ঝামেলা হয় না। রাতে হেড লাইট থেকে আমি অনেক আলো পাই। যা আমাকে দিনের মতই দেখতে সুবিধা দেয়। বাইকটির হ্যান্ডেলবার মোটামুটি ভাল। তবে অতি দীর্ঘ যাতায়াতে আমার সমস্যা হয়। হাত ব্যথা ও ঝিনঝিন করে। আমি এক দিনে ১০০ কিমি পথ অতিক্রম করেছি। বাইকটি আমি সর্বোচ্চ ৮০ গতিতে তুলেছি। সর্বোচ্চ গতিতে চালালে ৭০ গতির উপরে তুললে বাইকের মাথা খুবই কাপে। দীর্ঘক্ষন বসে রাইড করলে হাতে, পিঠে, কোমরে বেশ ব্যথা করে। বাইকটির সাসপেনশন মোটামুটি ভাল। খারাপ রাস্তায় খুব বেশি ঝাকুনি মনে হয় না। তবে বলতে গেলে এই বাইকের ইঞ্জিন থেকে আমি খুব ভাল মাইলেজ পাচ্ছি। মাইলেজের দিক দিয়ে এই বাইকটি সেরা। এর লুকিং গ্লাস দুটো পিছনের দৃশ্য দেখতে আমাকে ভাল সাপোর্ট দেয়। এর চাকার ট্যায়ারের গ্রিপ গুলো অনেক ভাল। এ জন্য ব্রেক করলে খুব একটা স্লিপ করে না। এর সামনে ও পিছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক রয়েছে।

আমি কোন দিন সার্ভিসিং সেন্টারে মোটরসাইকেল নিয়ে সার্ভিসিং করাই নাই। যে কোন সমস্যা হলে আমাদের পাশের বাজারের মেকানিক এর কাছ থেকে সার্ভিসিং করিয়ে নিই। তবে এই বাইকে এখনো মেজর কোন সমস্যা বুঝতে পারি নাই।
এই মোটরসাইকেলটি মাইলেজের দিক থেকে খুবই ভাল। কারন এখন আমি মোটামুটি ৬০ কিমির উপরে মাইলেজ পাচ্ছি। এজন্য আমি একটু বেশিই সন্তুষ্ট। ১০০ সিসি বাইক থেকে এমন মাইলেজ পেয়ে সত্যিই আমি খুব খুশি। এছাড়া দামের কথা বলতে গেলে বাইকের কোয়ালিটি ও পারফরমেন্স বিবেচনা করে দামটা আমার কাছে সঠিক আছে বলে মনে হয়েছে।

কেউ ভাল মাইলেজ সমৃদ্ধ মোটরসাইকেল কিনতে চাইলে এই ভিক্টর আর ভি ১০০ লিংক এর এই মোটরসাইকেলটি কিনতে পারেন। মনে রাখতে হবে ইঞ্জিন সর্বোদা ভাল রাখতে ভেজালমুক্ত তেল ব্যবহার করতে হবে। সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে আমি আমার কথা শেষ করছি। সবাই ভাল থাকবেন। এই শুভ কামনায় বিদায়।

Rate This Review

Is this review helpful?

Rate 1
Rate 2
Rate 3
Rate 4
Rate 5


More reviews on
    5 Reviews found
  • এটলাস জংশেন জেডএস১২৫ মোটরসাইকেল রিভিউ - জীম
    2019-05-09
    আমি সবার থেকে একটু ভিন্ন ধরনের বাইক কিনবো বলে এটলাস জংশেন জেড এস ১২৫-৬৮ বাইকটি কিনি। এটি আমি ১ বছর যাবত ব্যবহার করছি। এই ১ বছরে প্রায় ৭০০০ কিমি চালিয়েছি। এই বাইকটির লুক আকর্ষণীয় এবং এর গ্রাফিক্যাল ডিজাইন গুলো অনেক সুন্দর। সিটিং পজিশনের সাথে হ্যান্ডেলবারের কম্বিনেশন বেশ ভাল এবং এর ফ্লুয়েল ট্যাংকারটাও...
    English Bangla
  • লিফান ভিক্টর-আর ভি১০০লিংক রিভিউ - আওয়াল আলী
    2019-01-06
    প্রথমেই আমি আমার পরিচয় দিয়ে শুরু করছি। আমার নাম মোঃ আওয়াল আলী। পেশায় আমি একজন ব্যবসায়ী। আমার মোটরসাইকেল এর নাম ভিক্টর আর ভি ১০০ লিংক। ব্যবসার কাজে আমাকে প্রতিনিয়ত এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে হয়। এই কাজের জন্য একটা মোটরসাইকেল আমার খুব জরুরি ছিল। তখন আমি ভিক্টর আর ভি ১০০ লিংক মোটরসাইকেলটি কিনার সিদ্...
    English Bangla
  • ভিক্টর-আর ভি১০০লিংক মোটরসাইকেল রিভিউ - আবু সায়েদ
    2018-08-30
    আমার পরিচয় আমি আবু সায়েদ। পেশায় আমি একজন ব্যবসায়ী। আমার মোটরসাইকেল এর নাম ভিক্টর আর ভি ১০০ লিংক। এই মোটরসাইকেলটি আমি চার বছর যাবত ব্যবহার করছি। চার বছরে আমি প্রায় ৪০,০০০ কিমি পথ চালিয়েছি। এটা আমার জীবনের প্রথম বাইক। এর আগে আমি আমার বন্ধুদের বিভিন্ন ব্যান্ডের বাইক চালিয়েছি। তাদের বাইকেই আমি প্রথমে চা...
    English Bangla
  • ইয়ামাহা আর১৫ ভি৩ থাই ভার্সন মোটরসাইকেল রিভিউ - এসএম ইয়াসির আরাফাত
    2018-07-12
    আমি এসএম ইয়াসির আরাফাত। আমার বাসা মারিয়া খড়খড়ি। আমার পড়া-লেখার শেষ এবং পড়া-লেখা শেষ করে আমি এখন আউটসোরসিং এর কাজ করি। বাইক চালানোর নেশা আমার অনেক ছোট বেলা থেকেই ছিল। বাইক চালানো দেখতে আমার অনেক ভালো লাগতো। তাই ভাবলাম আমিও বাইক চালানো শিখব। বাজাজের ১৫০ সিসি এর বাইকে আমি সর্ব প্রথম বাইক চালানো শিখি। চাল...
    English Bangla
  • ইয়ামাহা ফেজার ২০১৪ মোটরসাইকেল রিভিউ - সোহাগ হোসেন
    2017-05-15
    আমি মো: এনায়েম হোসেন সোহাগ। আমার জীবনে এখন পর্যন্ত ২টি বাইক ব্যবহার করেছি, ১ম ওয়ালটন ফিউসন ১১০ সিসি এবং ২য় টি আমার বর্তমান কলিজার টুকরা ইয়ামাহা ফেজার ২০১৪ মডেল। ছোট বেলা থেকে বাইক খুব পছন্দ করতাম, কিন্তু পারিবারিক নিষেধাজ্ঞার কারনে ১ম বাইকটি পরিবারকে না জানিয়ে কিনেছিলাম। নিজের বাইক দিয়েই হাতেখড়ি। ...
    English Bangla



Filter
Brand
CC
Mileage
Price

Advance Search
Motorcycle Brands in Bangladesh

View more Brands