Suzuki 2021-07-19.webp
Yamaha Banner
Search

হাউজুয়ে টিআর ১৫০ মোটরসাইকেল রিভিউ - ওয়াসিম রেজা

English Version
2017-03-01 Views: 12038
Owned for 0-3months   []   Ridden for 0-1000km


This user provides ratings about this bike


  8 out of 10
Design
Comfort & Control
Fuel Efficient
Service Experience
Value for money

হাউজুয়ে টিআর ১৫০ মোটরসাইকেল রিভিউ - ওয়াসিম রেজা


Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza


আর সবার মতোই কৈশোর থেকেই মোটরসাইকেলের ভুত মাথায় চেপে বসে। স্কুল জীবনেই মোটরসাইকেল চালানোর হাতেখড়ি হয়। মোটরসাইকেল চালানো শেখার পর থেকে মোটরসাইকেল চালানোর নেশা আরো বেশি করে মাথায় চেপে বসে। শিক্ষা জীবন শেষে কর্মজীবনে এসে এখন প্রয়োজনের খাতিরেই মোটরসাইকেল ব্যবহার করতে হয়। আমি বর্তমানে ব্যবহার করছি HAOJUE TR নামের ১৫০সিসির এই মোটরসাইকেলটি। আমার মোটরসাইকেল ব্যবহারের অভিজ্ঞতা থেকে চেস্টা করবো আপনাদের সামনে HAOJUE TR এর ভালোমন্দগুলো তুলে ধরার।

বর্তমান মোটরসাইকেলের পূর্বে আমার ব্যবহৃত সবগুলো মোটরসাইকেলই ছিলো ইনডিয়ান, এবং এর মধ্যে বাজাজের মোটরসাইকেল ছিলো বেশি। যেমন সর্বপ্রথম ব্যবহার শুরু করি বাজাজ ক্যালিবার দিয়ে। এরপরে বাজাজ সিটি১০০। দীর্ঘ সময় ব্যবহার করেছি বাজাজ ডিস্কোভার ১৩৫ এবং বাজাজ ডিস্কোভার ১২৫। বাজাজের জনপ্রিয় মডেল পালসারটিও অনেকদিন ব্যবহারের সুযোগ হয়েছে। বাজাজের বাইরে টিভিএস এপাচি আরটিআর মোটরসাইকেলটি বেশ কিছুদিন ব্যবহার করেছি। সর্বশেষ কিনলাম HAOJUE TR

টিভিএস এপাচি আরটিআর ব্যবহারের সময় থেকেই ব্যাক পেইন অনুভব করছিলাম। প্রতিদিন অনেক মোটরসাইকেল চালাই না কিন্তু যতটুকুই চালানো হোক একটু বেশি আরামের প্রয়োজন অনুভব করছিলাম। আরামদায়ক রাইডের প্রয়োজনেই মুলত ক্রজার মোটরসাইকেলের দিকে ঝুকে পড়া। ক্রুজার খুজতে গিয়ে অন্যান্য ক্রজারের মধ্যে HAOJUE TR আমার কাছে বেশি আরামদায়ক মনে হলো। ডিজাইনটিও সুন্দর। একদেখাতেই ভালো লেগে যায়। টেস্ট রাইড দিয়ে যেটি মনে হলো এখানে ক্রুজারের আরাম যেমন রয়েছে তেমনি কমিউটার বাইকের সুবিধাও রয়েছে। আর আমার প্রয়োজনও ছিলো অনেকটা এমনই। তাই সিদ্ধান্ত নিতে দেরী করিনি। কেআর বাইক সেন্টার, রাজশাহী থেকে মোটরসাইকেলটি কিনে নেই।





Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-engine
১৫০সিসির ৮.৩কিলোওয়াট সর্বোচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেলটির সর্বোচ্চ টর্ক ১১.৪। গিয়ার ৫টি। সামনে ১টি পেছনে ৪টি। ইনজিনটিতে লং রাইডের জন্য আরেকটু বেশি ক্ষমতার প্রয়োজন থাকলেও শহরের ঘুরাঘুরিতে আমার কাছে যথেষ্ট কার্যকরী মনে হয়েছে। বয়সের কারনে টপস্পীড নিয়ে আগ্রহ না থাকলেও ইনজিনের পারফরমেন্স দেখে বুঝি এটি অনায়াসই ১০০কিমি/ঘন্টা চলতে পারবে। ব্যবহারের অভিজ্ঞতা থেকেই মনে হয়েছে এর জ্বালানি খরচ বেশি। ৩৫থেকে ৪০কিমি/লিটার। ১৫০সিসির ১৪৫কেজি ওজনের একটি ক্রুজার থেকে আসলে এরথেকে বেশি কিছু আশা করাও ভুল বিশেষকরে যখন এর আরামের কথা মনে হবে তখন জ্বালানি খরচের বিষয়টি কিছুটা গৌন হয়ে যাবে।





Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-fuel-tank
মোটরসাইকেলটির ডিজাইন নিয়ে একটি কথাই বলবো, চমতকার। আমার এক দেখাতেই ভালো লেগে গিয়েছিলো। শহরের মধ্যে চলতে অনেকেরই মুগ্ধদৃষ্টি অনুভব করি। বুঝতে পারি আমার মতোই অনেকেরই চোখ আটকে যায় এর ভিন্ন এবং সুন্দর লুক এর কারনে। লম্বা এবং সামনে উচু ফুয়েল ট্যাংক। সামনে নীচু সীট এবং পেছনে উচু সীট দুটি ভাগ করা(SPLIT) অর্থাত আধুনিক ডিজাইনের কম্বিনেশন। ফূযেল ট্যাংকের ঢাকনাতে ডিজিটাল মিটার আমাদের জন্য নতুন এবং বৈচিত্রপূর্নই বটে। দুপাশের দুটি ক্যারিয়ার বক্স ছোটখাটো জিনিস বহনে সাহায্যই করে। যদিও কিছু ক্ষেত্রে সমস্যাও করে।বিশেষকরে মহিলা সহযাত্রীদের জন্য বসতে কষ্টকর। রয়েছে গোলাকৃতি এনালগ মিটার।
Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-meter




Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-headlamp
হেডলাইটটি ভিন্ন ডিজাইনের। দেখতে ভালো লাগে এবং রাতে অনেক আলো দেয়। পেছনের টেইল লাইটটি অনেকটা ফ্লাট এবং মাঝে কৌনিকভাবে উচু। গতানুগতিক টেইল ল্যাম্পের মতো নয়। মোটরসাইকেলের অন্যান্য ইলেক্ট্রিক সিস্টেম বেশ ভালো।
Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-handles



অনেক মোটরসাইকেলেই গিয়ার শিফটিং নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। গিয়ার আটকে যাওয়া বা শিফটিং এ সমস্যায় পড়তে হয়। কিন্তু এই মোটরসাইকেলের গিয়ার শিফটিং যথেষ্ট ভালো। যদিও পাদানিটি ক্রুজারের মতো ফ্লাট নয় কিন্তু এরফলে শহরের মধ্যে গিয়ার পরিবর্তন এবং ব্রেকিং এর জন্য সুবিধাই হয়েছে। যদিও লং রাইডে ফ্লাট পাদানি থাকলে বেশি আরাম হতো।

স্পীড ব্রেকার বা উচু জায়গায় মোটরসাইকেল নিলে ইনজিনের নীচে ঘষা খায়। ইনজিনের নীচে আরেকটু খালি জায়গা থাকলে হয়তো ভালো হতো

Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-brakes
সাসপেনশন এবং ব্রেকিং ভালো। সামনে ডিস্ক ব্রেক রয়েছে। পেছনের মোটা চাকা রয়েছে। তাই কন্ট্রোল এবং কমফোর্টে বেশ ভালো বলা যায়।
Haojue-TR-150-user-review-by-Wasim-Reza-rear-suspension

মোটরসাইকেলটির ভালো দিক
- সুন্দর ডিজাইন
- আরামদায়ক সীট
- আধুনিক ফীচার
- টাকার সর্বোচ্চ ব্যবহার

মোটরসাইকেলটির খারাপ দিক
- সাইলেন্সারটি বেশি গরম হয়ে যায়
- গ্রাউন্ডক্লিয়ারেন্স কম
- মোটরসাইকেলটি ঘোরাতে একটু বেশি জায়গা লাগে। শহরের ভীড়ে কিছুটা সমস্যার কারন।

যদিও দুরের পথের থেকে শহরের মধ্যেই আমার ঘুরাঘুরি বেশি কিন্তু আরামের সাথে পথ চলতে মোটরসাইকেলটি সর্বোচ্চ সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে। দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি আরামদায়ক। মোটরসাইকেলটি চায়নাতে তৈরী হলেও ভরসার কথা এই যে এটি চাইনিজ সেরা ব্রান্ডগুলোর একটি, যাদের মোটরসাইকেল পৃথিবীর বহুদেশে সমাদৃত। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত মোটরসাইকেলটি আমারকাছে ভালো মনে হয়েছে। আপনি যদি সীমিত বাজেটে ভালো মানের আরামদায়ক এবং স্টাইলিশ ক্রুজার পেতে চান তাহলে HAOJUE TR আপনার পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন।






Rate This Review

Is this review helpful?

Rate count: 41
Ratings:
Rate 1
Rate 2
Rate 3
Rate 4
Rate 5

More reviews on Haojue TR 150

হাউজুয়ে টিআর ১৫০ মোটরসাইকেল রিভিউ - ওয়াসিম রেজা
2017-03-01

আর সবার মতোই কৈশোর থেকেই মোটরসাইকেলের ভুত মাথায় চেপে বসে। স্কুল জীবনেই মোটরসাইকেল চালানোর হাতেখড়ি হয়। মোটরসা...

Bangla English
2016-12-25

Haojue Cool দিয়ে শুরু করে সর্বশেষ আগমন ঘটে Haojue TR150S মোটরসাইকেলটির। বিগত কয়েক বছর ধরে কর্নফুলী ইন্ডাস্ট্রীজ লিমিটেড চায়নার...

Bangla English